লজ্জাজনকভাবে এবার ধানের শীষের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে
লজ্জাজনকভাবে এবার ধানের শীষের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে

লজ্জাজনকভাবে এবার ধানের শীষের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব আওয়ামী লীগের কাছে ধানের শীষ বিক্রি করে দিয়েছে। তাই লজ্জাজনকভাবে এবারে এই আসনে ধানের শীষের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।’ ঈশ্বরদী উপজেলা বিএনপি বাতিল এবং পৌর বিএনপি স্থগিত করার প্রতিবাদে শনিবার সন্ধ্যায় ঈশ্বরদী পুরাতন বাসস্ট্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশে তৃণমূল বিএনপি’র বাতিলকৃত কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব শামসুদ্দিন মালিথা একথা বলেন।

এরআগে ঈশ্বরদী রেলগেটস্থ কার্যালয় হতে নেতাকর্মীরা হাবিবের বিরুদ্ধে ঝাঁটা মিছিল নিয়ে এই সমাবেশে যোগ দেন। মিছিল শেষে হাবিবের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। শামসুদ্দিন মালিথা ঈশ্বরদীর মাটিতে হাবিবকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে আরো বলেন, তৃণমূলের জনপ্রিয় পৌর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া পিন্টুকে হাবিবই ষড়যন্ত্র করে ঢাকায় গ্রেফতার করিয়ে কারারুদ্ধ করেছে। খালেদা জিয়া, জাকারিয়া পিন্টুসহ সকল বিএনপি’র নেতা কর্মীর মুক্তির দাবী করে তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ হতে আসা হাবিব বিগত ২০ বছর ধরে এজেন্ট হিসেবে কাজ করায় এই আসনে ধানের শীষ বার বার পরাজিত হচ্ছে। বক্তারা এসময় হাবিবের কথায় কেন্দ্র কর্তৃক অগণতান্ত্রিকভাবে ঈশ্বরদী উপজেলা বিএনপি বাতিল এবং পৌর বিএনপি স্থগিতের ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন। এসময় তৃণমূলের মনোনীত ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সাবেক সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম সরদার, পৌর বিএনপি’র সভাপতি আকবর আলী বিশ্বাস, যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন জনি, সাবেক চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান আমিনুল ইসলাম কেনেডি, পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জুয়েলসহ বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের তৃণমূলের প্রায় সহস্রাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি’র মনোনয়ন নিয়ে পাবনা-৪ আসনে প্রথম হতেই পুরনো ‘সিরাজ বনাম হাবিব দ্বন্দ্ব’ প্রকট আকার ধারণ করে। সিরাজকে বাদ দিয়ে কেন্দ্র হাবিবকে মনোনয়ন দেয়ায় উপজেলা ও পৌর বিএনপি’র বেশীর ভাগ তৃণমূল নেতা-কর্মী হাবিবের পক্ষে প্রচারণা হতে বিরত থাকেন। এই অবস্থায় পাবনার জেলার নেতারা দফায় দফায় হাবিবের সাথে সিরাজ সরদারের দেখা করানো এবং নির্বাচনী মাঠে নামার উদ্যোগ নিলেও সিরাজ বা তাঁর অনুসারী তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা নিষ্ক্রিয় থাকেন।গত ১৫ই ডিসেম্বর হাবিবের নিজ গ্রাম সাহাপুরে জেলা কমিটির নেতাদের উপস্থিতিতে ধানের শীষের পক্ষে প্রচারণায় নামার জন্য বিএনপি’র বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়। এই সভায় উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন বিশ্বাস ছাড়া উপজেলা ও পৌর কমিটির গুরুত্বপূর্ণ নেতারা অনুপস্থিত ছিলেন। সভায় ২ দিনের মধ্যে ধানের শীষের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেয়ার আল্টিমেটাম দিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

আল্টিমেটামের মেয়াদ শেষ হলেও তৃণমূল নেতা-কর্মীরা পূর্বের অবস্থানে অটল থাকেন। শেষ পর্যন্ত হাবিব কেন্দ্রীয় কমিটিতে অভিযোগ করলে গত ১৯শে ডিসেম্বর বিএনপি’র সহ-দপ্তর সম্পাদক মুহাম্মদ মুনির হোসেন জেলা কমিটিকে প্রেরিত একপত্রে ঈশ্বরদী উপজেলা কমিটি বিলুপ্ত এবং পৌর কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করে। এই ঘটনায় বিএনপি’র তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা ফুঁসে উঠেছেন।



Published: 2018-12-23 11:14:45