মাঠে নীরব বিএনপি, সরব আ’লীগ
 মাঠে নীরব বিএনপি, সরব আ’লীগ

মাঠে নীরব বিএনপি, সরব আ’লীগ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় যতই এগিয়ে আসছে ততই দুটি বড় দলের নেতাকর্মীদের তৎপরতা বাড়ছে। তবে বিএনপির এখানে একাধিক গ্রুপ থাকায় সবাই এখনও মাঠে নামেনি। আওয়ামী লীগ ইতিমধ্যে সুশৃঙ্খল সাংগঠনিক পরিকল্পনা নিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয় বিএনপির শীর্ষনেতাদের মধ্যে এখনও কোনো সমঝোতা বৈঠক হয়নি, কেন্দ্র থেকেও কোনো উদ্যোগ নেয়ার খবর এখনও শোনা যায়নি।

পাবনা-৪ আসনে অফিসিয়ালি প্রার্থী রয়েছেন চারজন। তারা হলেন-আওয়ামী লীগের শামসুর রহমান শরীফ (মহাজোট), বিএনপির হাবিবুর রহমান হাবিব (ঐক্যফ্রন্ট), মাওলানা আবদুল জলিল (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ) হাতপাখা ও আবদুর রশিদ শেখ (এনপিপি) আম প্রতীকে। পাবনা-৪ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থী তাদের নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে গেলেও বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে একাধিক গ্রুপ এখনও এককাতারে শামিল হতে পারেনি। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের পঞ্চমবারের মতো মনোনীত প্রার্থী শামসুর রহমান শরীফ মাঠে সক্রিয় ভূমিকায় নিজে যেমন রয়েছেন, তেমনি দলীয় নেতাকর্মীরাও ভোটারদের কাছে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চাচ্ছেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম সরদার ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিবের মধ্যে নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের। এ দ্বন্দ্বের কারণেই বিগত চারবার আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে বলে বিএনপির অধিকাংশ নেতাকর্মী মনে করেন। গত ২৭ নভেম্বর ঈশ্বরদী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া পিন্টু ঢাকায় র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর দলীয় গ্রুপিং মুক্ত করার উদ্যোগ নেয়ার নেতার অভাব রয়েছে।

তবে ঈশ্বরদী পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মকলেছুর রহমান বাবলু যে কোনোভাবে সব ভেদাভেদ ভুলে ধানের শীষকে বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু বাস্তবে যে তিনটি পক্ষ আছে তারা এখনও মাঠে নামেনি। বিএনপি প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, সাধারণ কর্মীদের মধ্যে কোনো মতভেদ নেই, সবাই কাজ করছে। প্রশাসন এখানে নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করছে না।



Published: 2018-12-19 10:36:41